এস কে আলীম,কপিলমুনি খুলনা। খুলনার পাইকগাছায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে হামলার ঘটনায় আহত আনসার সরদার (৬০) তিন দিন পর মারা যান। ঘটনাটি গত ২ জুলাই। এ ঘটনায় মৃত্যের ছেলে আব্দুর রহিম বাদী হয়ে ৬ জুলাই পাইকগাছা থানায় হত্যা মামলা করে। মামলার প্রায় দেড় মাস পার হলেও কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। মামলার বাদী আব্দুর রহিম সরদার(৪১) জানান আসামী ও তার পরিবার বর্গ মামলা তুলে নিতে ভায় ভিত দেখাচ্ছে বলে নিরপত্তা হিনতায় রয়েছেন তিনি। উল্লেখ্য, উপজেলার কাশিমনগর গ্রামে প্রতিবেশী কওসার সরদারদের সঙ্গে জমিসংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে দীর্ঘদিন। গত ২ জুলাই আনসার সরদার রোজা রেখে ফজরের নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন। এ সময় কওসার সরদারের ছেলে সিদ্দিক সরদার, আলতাফ সরদার ও রাজু সরদার তাঁকে দা দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। মামলার বাদী বলেন, বাবাকে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতাল ও পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ জুলাই রাত সাড়ে ৯ টায় মারা যান। ৬ জুলাই আমি বাদী হয়ে পাইকগাছা থানায় হত্যা মামলা করি। আসামী ধরার কথা বল্লে পুলিশ কোন আগ্রহ দেখাচ্ছে না। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শ জি এম ইমদাদুল হক আব্দুল বলেন, মামলার পর থেকে আসামীরা পালাতক রয়েছে। তারা কোন মোবাইল ব্যবহার করছে না সে কারণে তাদেরকে গ্রেফতার করতে দেরী হচ্ছে। তবে তাদেরকে গ্রেফতারের জন্য জোর প্রচেষ্টা চলছে।
ছবির ক্যাপশন: নিহত আনসার সরদার( ৬০) এর ফাইল ছবি।