সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:
পরানপুর এ. র‌উফ মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক দেবব্রত কুমার মন্ডল
এর সনদ পত্র জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছে।

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে পরানপুর এ. র‌উফ মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক এর সনদ পত্র জালিয়াতির অভিযোগে সাতক্ষীরা আদালতে মামলা হয়েছে।

পরানপুর এ. র‌উফ মেমোরিয়াল ইস্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক মোঃ আব্দুল হামিদ গাজী সাতক্ষীরা বিজ্ঞ যুগ্ন জেলা জজ ২য় আদালতে দেং ৫৫ /২০২২ নং মামলা করেন। তিনি ঐ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র সহকারী মৌলুভী শিক্ষক। তিনি অভিযোগে বলেন, পরানপুর এ. র‌উফ মেমোরিয়াল স্কুলটি ১৯৮৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০১১ সালে কলেজিয়েট স্কুল হিসেবে পাঠদানের অনুমতি পাই। প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক / অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল গনি অবসর জনিত কারণে ৭ মে ২০২১ তারিখে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে দেবব্রত কুমার মন্ডল কে ম্যানেজিং কমিটি নিয়োগ প্রদান করে। তিনি অভিযোগে বলেন তার বিএড সার্টিফিকেটটি মহামান্য সুপ্রিম কোর্ট ৯৯/২০১৪ নাম্বার আপিল মামলার আদেশ এবং ১৫৩/২০১৪ নাম্বার কনটেন্পট পিটিশনের আদেশ মোতাবেক অনুমোদিত শান্তা মারিয়াম ইউনিভার্সিটি অব ক্রিয়েটিভ টেকনোলজি কর্তৃক অত্র মোকাদ্দমার ১ নম্বর বিবাদী দেবব্রত কুমার মন্ডলের বরাবর ইস্যুকৃত বিএড পাশের সার্টিফিকেটটি আদৌ বিধি মোতাবেক ও মহামান্য সুপ্রিম কোর্টের আদেশ মোতাবেক গ্রহণযোগ্য না। এঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

পরানপুর এ. র‌উফ মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক দেবব্রত কুমার মন্ডল জানান, কাগজপত্র আমার কাছে সঠিক আমার কাছে যা ডকুমেন্ট সঠিক আছে। পরানপুর এ. র‌উফ মেমোরিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক পদে পত্রিকায় বিজ্ঞাপন মাধ্যমে নিয়োগ দিলে আমি দরখাস্ত করলে পরর্বতীতে ইন্টারভিউ বোর্ডের কার্ড পেলাম। পরিক্ষা দিলে আমাকে জানানো হলো আপনি নির্বাচিত হয়েছেন। ওনারা আমাকে এপারমেন্ট কার্ড দিলে আমি যোগদান করি।